সাতকানিয়া সরকারি কলেজের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

দক্ষিণ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাতকানিয়া সরকারি কলেজ। এ কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৪৯ খ্রিঃ সালে। দানবীর মরহুম মোজাফ্ফর আহমদ চৌধুরী টি.কে. কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। কলেজটি মোট ৯.৬০ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত। প্রশাসনিক ভবন, একাডেমিক ভবন ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ সহ সুন্দর অবয়ব নিয়ে কলেজ অঙ্গন। এছাড়া অনেক বড় খেলার মাঠ ও প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশ বেষ্টিত একটি পুকুর কলেজ ক্যাম্পাসে বিদ্যমান আছে। ১৯৮২ খ্রিঃ সালে কলেজটি সরকারি হয়।

শুরুতে কলেজটিতে এইচ.এস.সি, বি.এ ও বি.এস. সি কোর্স চালু ছিল। বর্তমানে এইচ.এস.সি, বি.এ ও বি.এস.সি ছাড়াও বি.বি.এস এবং গণিত, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা ও ইংরেজি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়েছে। কলেজের এইচ.এস.সি, স্নাতক (পাস) ও স্নাতক (সম্মান) পর্যায় মিলে প্রায় চার হাজার ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়নরত। কলেজের বর্তমান কর্মরত শিক্ষক সংখ্যা ৫২ জন।

যোগাযোগ ব্যবস্থার দিক থেকে এ কলেজটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। কলেজটি সাতকানিয়া উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রোড়ের কেরাণীহাট রাস্তার মাথা হতে কলেজ পর্যন্ত সরাসরি একটি রোড় বিদ্যমান আছে। ফলে সাতকানিয়া, লোহাগাড়া, আমিরাবাদ, চন্দনাইশসহ বিভিন্ন উপজেলার ছাত্র-ছাত্রীরা এ কলেজের অধ্যয়নের সুযোগ পাচ্ছে।

এ কলেজে বিভিন্ন পরীক্ষায় ছাত্র-ছাত্রীদের ফলাফল ঈর্ষণীয়। ফলে প্রতি বছর এইচ.এস.সি’তে পাসকৃত বেশ কতক সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী মেডিকেল কলেজ,  ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার গৌরব অর্জন করছে। কলেজের বি.এন.সি.সি ক্যাডেটরা অনেক সমৃদ্ধ।
কলেজের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের কর্মজীবন সাফল্যমন্ডিত। তাঁরা সফল ব্যবসায়ী, সরকারের উচ্চ পর্যায়ের আমলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিভিন্ন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষসহ অনেক উচ্চ পর্যায়ের জাতীয় রাজনৈতিক নেতা হিসেবে এদেশে মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। 
এ সাফল্যকে ধারণ করে আগামীতে আরো সুন্দর ও গৌরবোজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নির্মাণে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে, এ প্রত্যাশা আগামী দিনের জন্য থাকল।
...